চিলমারীতে অনিয়মকে নিয়ম বানাচ্ছেন প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক নাহিদ হাসান

চিলমারীতে অনিয়মকে নিয়ম বানাচ্ছেন প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক নাহিদ হাসান

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ কুড়িগ্রামের চিলমারী উপজেলার চর শাখাহাতি ১নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত থেকেও অনিয়মকে নিয়ম বানাচ্ছেন সহকারী শিক্ষক মোঃ নাহিদ হাসান।

জানা যায়,গত ১৭/০৪/২০১৯ খ্রি. সহকারী শিক্ষক মোঃ নাহিদ হাসান বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত ছিলেন মর্মে প্রধান শিক্ষকের প্রতিবেদন হতে জানা যায়।কিন্তু মাসিক বিবরণী যাচাইকালে দেখা যায় তিনি ঐ একই তারিখের জায়গায় অনুপস্থিত লেখার উপর দিয়ে উপস্থিতির স্বাক্ষর করেছেন। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের প্রতিবেদন অনুযায়ী সহকারী শিক্ষক নাহিদ হাসান গত ২৭/০৪/২০১৯ খ্রি. হতে ২৯/০৪/২০১৯ খ্রি. পর্যন্ত নৈমিত্তিক ছুটি গ্রহন করেন কিন্তু পরবর্তীতে নৈমিত্তিক ছুটি লেখার উপর দিয়ে ওই সহকারী শিক্ষক উপস্থিত স্বাক্ষর করেন।

এছাড়াও গত এপ্রিল-মে/২০১৯ মাসের মাসিক বিবরণী থেকে জানা যায় সহকারী শিক্ষক নাহিদ হাসান ১১/০৪/২০১৯ খ্রি. তারিখে নৈমিত্তিক ছুটিতে ছিলেন। পরবর্তীতে ১২/০৪/২০১৯ থেকে ১৪/০৪/২০১৯ . তারিখ পর্যন্ত বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে ০৩দিন বিদ্যালয় বন্ধ থাকার পরবর্তী দিন ১৫/০৪/২০১৯ খ্রি. পুনরায় ওই সহকারী শিক্ষকের স্বাক্ষরের স্থানে নৈমিত্তিক ছুটি লেখা দেখা যায়।কিন্তু নৈমিত্তিক ছুটির বিধানে নৈমিত্তিক ছুটি উভয় দিকে সরকারি ছুটির সহিত যুক্ত করা যাবে না।স্পষ্টভাবে উল্লেখ থাকলেও কিভাবে ১৫/০৪/২০১৯ খ্রি. তারিখে নৈমিত্তিক ছুটি গ্রহন করল সে ব্যাপারে স্পষ্টীকরণ ব্যাখ্যা সংশ্লিষ্ট সহকারী শিক্ষক ও প্রধান শিক্ষককে কৈফিয়ত তলব করেন উপজেলা শিক্ষা অফিসার নজরুল ইসলাম ।

প্রধান শিক্ষক লায়লা আঞ্জুমান বানু বলেন, সহকারি শিক্ষক নাহিদ হাসান জোর পূর্বক হাজিরা খাতায় উপস্থিত স্বাক্ষর করেছেন। আমি এ ব্যাপারে লিখিতভাবে উপজেলা শিক্ষা অফিসকে জানিয়েছি।

এ ব্যাপারে চিলমারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ আবু সালেহ সরকার জানান, আমি নতুন এসেছি দায়িত্ব গ্রহনের পর এখনো কাগজপত্র খুঁজে পাচ্ছি না খুজে পেলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করব।

Categories: অপরাধ ফলোআপ

Tags: