তন্ত্র মন্ত্র নয় গাছ গাছরা দিয়ে সাপ ধরে জীবিকা চলে রিক্স চালক সিদ্দিকের

তন্ত্র মন্ত্র নয় গাছ গাছরা দিয়ে সাপ ধরে জীবিকা চলে রিক্স চালক সিদ্দিকের

মাহফুজ বাবু ; বিষাক্ত কাল কেউটে কিংবা গোখরা কামড় দিলেই মৃত্যু সেই  সাপই যেন তার কাছে খেলনা। গলায় ঝুলিয়ে মালা বানিয়ে হাটছেন  একটা দুটো নয় ৪টা গোখরা সাপ। সাথে হাতের ব্যাগের ভেতরে ৬০টি সাপের ডিম। এক বাড়ির গর্ত থেকে তুলে এনেছেন সাবগুলো। সাপের ভয়ে আতঙ্কিত বাড়ির মালিক খুশি হয়ে টাকাও দিয়েছেন কিছু। কুমিল্লা তিতাসে  বিষধর সাপ ধরা, সর্পদংশনের বিষ নামানোসহ সাপের বিষ ও দাঁত দিয়ে চিকিৎসা করে এলাকায় পরিচিতি লাভ করেছেন দিনমজুর সিদ্দিক মিয়া।

সিদ্দিক মিয়া  উপজেলার মাছিমপুর গ্রামের মৃত নাগর মিয়ার ছেলে। তিনি সাপ ধরার পাশাপাশি অবসর সময় রিকশাও চালান । একান্ত আলাপনে ৪৫ বছর বয়স্ক সিদ্দিক জানান, তার কাজের নানা অভিজ্ঞতার কথা। প্রায় ৩০ বছর ধরে তিনি কোন রকমের তাবিজ, জাদু, টোনা, মন্ত্র ছাড়াই আল্লাহর সৃষ্টি গাছগাছালির শক্তি দিয়ে সাপ ধরা, সর্প দংশনের বিষ নামানোসহ সাপের বিষ ও দাঁত দিয়ে চিকিৎসা করে আসছে। তিনি ছোট বেলা থেকেই সাপ নিয়ে খেলা করার প্রতি উৎসাহী ছিলেন। আর সে উৎসাহ থেকে আজ সাপ ধরা তার নেশা ও পেশা হয়ে উঠেছে। তবে জীবনের শেষপ্রান্ত পর্যন্ত সাপ ধরে মানুষের উপকার করে যাবেন বলে তিনি জানান। কোথাও কারো বাড়িতে সাপের সন্ধান পেলে লোকজন ফোন করে খবর দিয়ে নিয়ে যায় তাকে।
বর্তমানে সিদ্দিক মিয়া, কুমিল্লা জেলার বিভিন্ন উপজেলায় বাসাবাড়ি, স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসাসহ বিভিন্ন স্থান থেকে বিভিন্ন প্রজাতির সাপ ধরে এবং  সাপের ডিম সংগ্রহ করে সুনাম কুড়িয়েছেন।

Categories: কুমিল্লা

Tags: