আশুলিয়ায় জলিলের রমরমা অবৈধ গ্যাস বাণিজ্য

আশুলিয়ায় জলিলের রমরমা অবৈধ গ্যাস বাণিজ্য

মশিউর রহমা, আশুলিয়াঃ আশুলিয়ায় অবৈধ গ্যাস সংযোগ থেকে কয়েক লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে বলে এমন অভিযোগ পাওয়া গেছে অসাধু গ্যাস ব্যবসায়ী জলিল খানের বিরুদ্ধে।

আশুলিয়ার ইয়ারপুর ইউনিয়নের দিয়াখালী ও দেওয়ান মার্কেট এলাকা থেকে তার বিরুদ্ধে প্রতিমাসে টাকা আদায়ের অভিযোগ পাওয়া যায়।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, এই অসাধু গ্যাস ব্যাবসায়ী জলিল প্রথমে বাড়ীর মালিক প্রতি ২০ থেকে ৩০ হাজার টাকা সংযোগ দেয়ার কথা বলে আদায় করে। এরপরে অবৈধ সংযোগ দিয়ে ঐ এলাকা থেকে রাইজার প্রতি মাসে ৫০০ টাকা মাসোহারা আদায় করছে। এতে করে একদিকে সরকার প্রতিবছরে মোটা অঙ্কের রাজস্ব হারাচ্ছে। অন্যদিকে ভাড়াটিয়া ধরে রাখতে বাড়ীর মালিকদেরকে বাধ্য হয়ে গুণতে হচ্ছে হাজার-হাজার টাকা।

এলাকাবাসী অভিযোগ করে জানান, জলিল সে দীর্ঘদিন ধরে দিয়াখালী ও দেওয়ান মার্কেট এলাকায় অবৈধ গ্যাস ব্যবসার সাথে জড়িত আছে। আমরা বাসা ভাড়া দিতে বাড়ী বানাইছি। আর ভাড়াটিয়া বাসা ভাড়া নিতে আসলে গ্যাস আছে কিনা তা আগেই জানতে চায়। যে বাড়ীতে গ্যাসের লাইন নাই, সেই বাড়ীতে কোন ভাড়াটিয়া আসে না। তাই কোন উপায় না পেয়ে টাকা দিয়ে এই অবৈধ সংযোগ নিতে বাধ্য হয়েছি। আবার প্রতিমাসেও তাকে ৫০০ টাকা করে দিতে হয়। এরপরে যদি তিতাস কর্তৃপক্ষ এই অবৈধ সংযোগ উচ্ছেদ করে তাহলে আবারও সংযোগ দিতে জলিলকে টাকা দিতে হবে। এতেকরে আমরা এক প্রকার হয়রানির শিকার হচ্ছি। এসব অঞ্চলে যদি আমরা বৈধ লাইনের সংযোগ পেতাম তাহলে এই হয়রানি থেকে হয়তবা মুক্তি পেতাম।

লাইন সংযোগের সময়ে বাড়ীর মালিকদের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের কোন টাকা নেওয়া হয়েছে কিনা জলিলকে জিজ্ঞাসা করা হলে সে এসব বিষয়ে অস্বীকার করে। তবে বাড়ীর মালিকদের কাছ থেকে মাসে-মাসে দুই একশ টাকা আদায় করছে বলে সে স্বীকার করে।

এ বিষয়ে সাভার তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড এর প্রকৌশলী আবু সাদাৎ মোহাম্মদ সায়েম বলেন, আশুলিয়ায় বিভিন্ন এলাকায় অসাধু গ্যাস ব্যবসায়ীরা অবৈধভাবে গ্যাস সংযোগ দিয়েছে এমন খবর আমরা পেয়েছি। এরই প্রেক্ষিতে বিভিন্ন এলাকায় অভিযানও পরিচালনা করে আসছি। তবে যেসব এলাকায় এ অবৈধ সংযোগ রয়েছে সেসব এলাকায় পর্যায়ক্রমে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হবে এবং এর সাথে যারা জড়িত আছে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হবে বলেও জানান তিনি।

Categories: অপরাধ ফলোআপ,ঢাকা

Tags: