অবসরের বিষয়ে কি মত বদলাচ্ছেন গেইল?

অবসরের বিষয়ে কি মত বদলাচ্ছেন গেইল?

স্পোর্টস ডেস্ক : বয়সটা চল্লিশ ছুঁইছুুঁই। এবারের পর আরেকটি বিশ্বকাপ নিশ্চয়ই খেলার আশা করেন না ক্রিস গেইল। গত ১৭ ফেব্রুয়ারি তো ঘোষণাই দিয়ে বসলেন, ২০১৯ বিশ্বকাপই হবে তার ওয়ানডেতে শেষ, ৫০ ওভারের ফরমেটে আর খেলবেন না বিশ্বকাপের পর।

গেইলের এমন ঘোষণা শুনে তার ভক্তদের মন খারাপ হয়ে গিয়েছিল। তাদের জন্য বোধ হয় সুখবরই আসছে। বিশ্বকাপের আগে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে চার ওয়ানডেতে দুই সেঞ্চুরি আর একটি হাফসেঞ্চুরি দিয়ে ফর্মে ফেরা গেইল তার সিদ্ধান্ত নিয়ে ভাবছেন নতুন করে।

নিজেরও বোধ হয় ওয়ানডে ফরমেটের প্রতি আগ্রহ কমে গিয়েছিল। বেশ কয়েক দিন স্বেচ্ছা নির্বাসনেও থাকেন। তবে ফেরার পর এই গেইলই চার ম্যাচে করেছেন ৩৪৭ রান। স্ট্রাইক রেটটাও তার ধরণেই, ১২০.০৬।

এমনভাবে ছন্দে ফেরার পর ক্যারিবীয় এই ব্যাটিং দানবের ভাবনা কিছুটা বদলে গেছে। তিনি বলেন, ‘আমি প্রচুর টি-টোয়েন্টি খেলি। তাই ৫০ ওভারের ক্রিকেটে ফেরাটা কঠিন হয়ে যায়। তবে এখন শরীরটা ৫০ ওভারের সঙ্গে মানিয়ে নিয়েছে।’

তারপর যা বললেন, তাতে স্পষ্টতই অবসরের সিদ্ধান্ত বদলানোর ইঙ্গিত। মারকুটে এই ব্যাটসম্যানের ভাষায়, ‘আমাকে শরীরটা নিয়ে কাজ করতে হবে। তারপর হয়তো আপনারা ক্রিস গেইলকে খুঁজে পাবেন। কিছু জিনিস দ্রুতই বদলে যায়। আশা করছি আগামী কয়েক মাসে শরীরটাও বদলাবে। আমরা দেখব কি হয়। আমার বয়স প্রায় ৪০। কিন্তু আমি কি অবসর না নিয়ে থাকতে পারব? দেখা যাক, আমরা সেটা ধীরে ধীরেই দেখব।’

যদি গেইল সিদ্ধান্ত বদলেই ফেলেন, তবে তার ভক্তরা নিশ্চয়ই খুশি হবেন। থেমে থেমে খেলার পরও কিন্তু ওয়ানডে ফরমেটে তার ২৫টি সেঞ্চুরি আছে, আছে ১০ হাজারের উপর রান। সেইসঙ্গে ইতিহাসের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ৫০০ ছক্কা হাঁকানোর কৃতিত্বও দেখিয়েছেন।

Categories: খেলাধুলা,প্রধান নিউজ

Tags: