শ্যামনগরে এমপি জগলুল হায়দারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র মূলক সংবাদের বিরুদ্ধে সর্ব মহলের নিন্দা

শ্যামনগর (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি : শ্যামনগর উপজেলা সদরে বাদঘাটা গ্রামে আব্দুস সবুর তরফদার ও আব্দুল বারী তরফদার দুই সহোদরের মধ্যে বাস্তু ভিটা নিয়ে বিরোধের জের ধরে সংশ্লিষ্ট আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য এস এম জগলুল হায়দারের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক অসৎ উদ্দেশ্য হাসিলের জন্য এবং দলীয় ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করতে ৩য় পক্ষ ধারাবাহিক ভাবে স্থানীয় বিভিন্ন পত্রিকায় সংবাদ পরিবেশণ অব্যহত রেখেছেন। মূলতঃ জামায়াত বিএনপি কুচক্রী মহল ছদ্দবেশী কতিপয় আওয়ামী চক্রের ঘাড়ে ভর করে আসন্ন নির্বাচনকে সামনে রেখে সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করা সহ এলাকার সার্বিক পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করতে একটি মহল উঠে পড়ে লেগেছে। ওই চক্রটি সাতক্ষীরা-৪ সংসদীয় এলাকায় সরকারের ব্যপক উন্নয়ণ মূলক কর্মকান্ডকে তৃণমুল পর্যায়ে মানুষের কাছে বিতর্কিত এবং আড়াল করতে এমপি জগলুল হায়দারকে জড়িয়ে খবর পরিবেশন করে যাচ্ছে। বিষয়টির প্রকৃত ঘটনা অনুসন্ধানে জানযায়, বাদঘাটা মৌজায় আব্দুস সবুর ও আব্দুল বারীর মধ্যে ভিটাবাড়ী নিয়ে দীর্ঘদিন বিরোধ চলে আসছে। এ নিয়ে দু ভাইয়ের মধ্যে দা-কুড়াল সম্পর্ক বিরাজমান। আইনের মার প্যাচে বিরোধীয় ওই সম্পত্তি হতে আব্দুস সবুর কিছু অংশ আবুল কালাম নামীয় এক ব্যক্তির কাছে বিক্রি করে দেয় এবং ক্রেতা যথারীতি জায়গা দখল নিয়ে নেয়। দখল নেওয়াকে কেন্দ্র করে দু’ভাই এবং আবুল কালামের মধ্যে বিরোধ তীব্র আকার ধারন করে। এক পর্যায়ে তারা সংশ্লিষ্ট আসনের এমপি এস এম জগলুল হায়দার এর কাছে নিষ্পত্তির জন্য স্মরনাপন্ন হয়। এমপি বিষয়টি আমলে নিয়ে যথাযথ আইনের প্রক্রিয়ায় সম্পন্ন করার জন্য উভয়পক্ষকে পরামর্শ দেন। বিষয়টি জমি জমা সংক্রান্ত এবং আইনী বিষয়। সেহেতু মনগড়া ভাবে কোন পক্ষে অবলম্বন করার সুযোগ নাই। সুতরাং আর্থিক লেনদেনের মাধ্যমে কারও পক্ষে ছাফাই গাওয়ার সুযোগ নাই। মুলতঃ এখানেই কল্পকাহিনীর জন্ম। ৩য় পক্ষ সংক্ষুব্ধ পক্ষের পক্ষ নিয়ে আর্থিক লেন দেন সংক্রান্ত এমপি জগলূল হায়দারকে জড়িয়ে ব্যক্তি স্বার্থ হাসিলের জন্য একের পর এক সংবাদ পরিবেশন করে যাচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে এমপি জগলুল হায়দারের সাথে সরাসরি কথা হলে তিনি জানান, এলাকায় আমার জনপ্রিয়তা প্রতি ঈশ্বানিত হয়ে মুখোশ ধারী রাজনৈতিক প্রতিপক্ষরা একটি কাহিনীর উপর ভর করে আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার অব্যহত রেখেছে। তিনি প্রকৃত ঘটনা উৎঘাটন করার জন্য এবং অপপ্রচারে কান না দেওয়ার জন্য সবাইকে অনুরোধ জানান। সাথে সাথে এলাকার উন্নয়নে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। এছাড়া এধরণের অপপ্রচারের বিরুদ্দে নিন্দা জানিয়ে সংসদীয় এলাকায় বিভিন্ন সংগঠন উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতি, শ্যামনগর উপজেলা প্রেসক্লাব, উপজেলা রিপোর্টাস ক্লাব, পূজা উৎযাপন পরিষদ, জাতীয় হিন্দু মহাজোট, উপজেলা আওয়ামীলীগ, কৃষকলীগ, শ্রমিকলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ সহ বিভিন্ন স্তরের মানুষ বিবৃতি প্রদান করেছেন।

Categories: খুলনা

Tags: